সর্বজন গ্রাহ্য মানবমুক্তির দলিল।। মুনতাসীর মামুন

ঐতিহ্য সংরক্ষণ বিশ্ব সংস্কৃতির অন্যতম বৈশিষ্ট্য। যুদ্ধ হলেও সবাই সচেষ্ট থাকে বিশ্ব ঐতিহ্যের স্মারকগুলি যাতে অটুট থাকে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়, যেমন, জার্মানির কেলোন শহরের মধ্যযুগের গির্জায় যাতে বোমা বর্ষণ না করা হয় সে ব্যাপারে সচেষ্ট ছিল মিত্রপক্ষ। ইরাক-আমেরিকা যুদ্ধের সময় আমেরিকা ব্যবিলনের কোনা স্মারক যাতে নষ্ট না হয় সে ব্যাপারে

Tanks Crush Revolt in Pakistan ।। Simon Dring

[Note: On March 25, 1971, just before launching ‘Operation Searchlight’, the Pakistan army locked up around 200 foreign journalists at the Intercontinental Hotel, and later sent them directly out of Dhaka. British journalist Simon Dring hid at hotel’s lobby, kitchen, and rooftop for 32 hours. When the curfew was lifted

‘নতুন প্রজন্মকে বোঝাতে হবে দেশের জন্ম কত যন্ত্রণার ছিল’

এফএনএস : ১৯৭১ সালের গণহত্যার ইতিহাস তুলে ধরার মধ্য দিয়ে নতুন প্রজন্মকে স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম কতটা যন্ত্রণাদায়ক ছিল, তা উপলব্ধি করানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন ইতিহাসবিদ অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন। শনিবার (২৩ নভেম্বর) বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে দুই দিনব্যাপী গণহত্যা বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপনীতে তিনি এ কথা বলেন। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব

Testament to atrocities

Genocide-torture museum in Khulna strives to preserve history of Liberation War Visitors look at artifacts in the museum. The photo was taken recently. Photo: STAR Dipankar Roy “I stood motionless in front of a table where a broken helmet and Pakistani currency were displayed at the martyred gallery. The currency

বিশ্বজুড়ে গণহত্যাকে রুখতে হবে

পাকিস্তানের হানাদার সেনাবাহিনী ও তাদের দোসর আলবদর, রাজাকার ও জামায়াতে ইসলামী ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালে ৯ মাসে ৩০ লাখ মানুষকে নির্বিচারে হত্যা ও পাঁচ লাখ নারীকে নির্যাতন করেছিল। এই নির্যাতন গণহত্যার শামিল। বিশ্বজুড়ে গণহত্যা সংঘটিত হয়েছে এবং শক্তিশালী দেশগুলোর স্বার্থে গণহত্যা এখনো হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে সচেতন হতে হবে। তরুণ প্রজন্মকে গণহত্যা